সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৩ ১৪২৬   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

amar24.com|আমার২৪
সর্বশেষ:
এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রের ২শ’ গজের মধ্যে জনসাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ ‘এরশাদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে’ ওয়ান ইলেভেনে আশরাফের বলিষ্ঠ ভূমিকা ছিল : প্রধানমন্ত্রী
৪৮৯

স্ত্রীর ভালোবাসার পরীক্ষা নিতে জীবন বাজি যুবকের!

প্রকাশিত: ১৭ মার্চ ২০১৯  

ভালোবাসার প্রমাণ দিতে নিজের রক্ত দিয়ে চিঠি লেখা, দেশ-পরিবার ত্যাগ কিংবা বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করার ঘটনা প্রায়ই শোনা যায়। কিন্তু ভালোবাসার পরীক্ষা নিতে নিজের জীবন রাখার ঘটনা সম্ভবত কেউ শুনেননি। তবে এমনই একটি ঘটনার জন্ম দিয়ে খবরের শিরোনামে এসেছেন চীনের এক যুবক। 

সংবাদ প্রতিদিনের এক খবরে জানানো হয়েছে, স্ত্রীর প্রতি ওই যুবকের ভালোবাসা পরিমাপের সব একককে ছাপিয়ে যায়। কিন্তু স্ত্রী কি তাকে ততটাই ভালোবাসে? সেই পরীক্ষা করতেই নিজের প্রাণ বাজি রেখেছেন তিনি। চীনের ঝেনজিয়াং প্রদেশের জিনহুয়ার ওই ঘটনার একটি ভিডিও সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে, রাতের ব্যস্ত রাস্তার মাঝখানে দাঁড়িয়ে আছেন এক যুবক। আর তাকে রাস্তার ধারে সরিয়ে আনতে প্রাণপণ চেষ্টা করছেন এক তরুণী। 

পরে জানা যায়, তারা দুজন স্বামী-স্ত্রী। ওই তরুণীই সেই পরীক্ষার্থী। ঘটনার সময় ওই যুবক মদ্যপ ছিলেন। তবে কঠিন এই প্রেমের পরীক্ষায় পাশ করলেও লেটার মার্ক পাননি তরুণী। কারণ স্বামীকে প্রাণে বাঁচালেও অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করতে পারেননি ওই তরুণী। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে ওই তরণীকে ঝউ ও যুবককে পান বলে উল্লেখ করা হয়েছে। ঝউ ওই তরুণীর স্বামীর পদবী।

স্থানীয়রা গণমাধ্যকে জানায়, ওই যুবক মদ্যপ। মদপান করে স্ত্রীর কাছে প্রেমের প্রমাণ দিতে ও নিতে প্রায়ই নানা অভিনব উপায় বের করত ওই যুবক। স্বামীর এসব কাজে বিরক্ত হলেও প্রেমের টানেই তাকে ছেড়ে যেতে পারেননি তার স্ত্রী। তাই বারবারই নানাভাবে স্বামীর প্রতি নিজের ভালোবাসার প্রমাণ দিয়েছেন। তবে ধাপে ধাপে কঠিন হয়েছে সেই পরীক্ষা। আর এবারের পরীক্ষা ছিল অগ্নিপরীক্ষার মতোই কঠিন। কারণ রাতের ব্যস্ত রাস্তায় হু হু করে চলছে গাড়ি। সেই রাস্তার মাঝে দাঁড়িয়ে থাকায় দু’জনেরই প্রাণের ঝুঁকি ছিল। কিন্তু তারপরও মদ্যপ স্বামীকে ছেড়ে যাননি স্ত্রী। দু’জনের ধস্তাধস্তির মধ্যেই দ্রুতগামী একটি ভ্যান ধাক্কা মারে যুবককে। অল্পের জন্য গাড়ির ধাক্কা থেকে বাঁচলেও টাল রাখতে না পেরে পথের পাশের রেলিংয়ে আছড়ে পড়েন তরুণী। কয়েক মূহূর্ত পর ফের ক্যামেরায় ধরা পড়েন তিনি। দেখা যায়, স্বামীকে উদ্ধার করতে তিনি রাস্তা ধরে ছুটছেন। পরে একটি গাড়ি দাঁড় করিয়ে তাতে আহত স্বামীকে তুলে হাসপাতালে যান ঝউ।

হাসপাতাল কতৃপক্ষ জানিয়েছে, অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচেছেন মদ্যপ ওই যুবক। তার মাথায় ও বুকের হাড়ে আঘাত লেগেছে। 

এদিকে ভিডিওটি দেখে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। হাসপাতালের বিছানায় শুয়েই পুলিশকে ওই যুবক জানিয়েছেন, স্ত্রীর ভালোবাসা পরীক্ষা করতে চেয়েছিলেন তিনি। তার দাবি, প্রকৃত ভালোবাসলে স্ত্রী তাকে মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে আনবেই বলে বিশ্বাস ছিল। আর স্ত্রী ভালো না বাসলে বাঁচার কোনও ইচ্ছেও তার ছিল না। 

এই বিভাগের আরো খবর