শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৪ ১৪২৬   ২০ মুহররম ১৪৪১

amar24.com|আমার২৪
সর্বশেষ:
এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রের ২শ’ গজের মধ্যে জনসাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ ‘এরশাদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে’ ওয়ান ইলেভেনে আশরাফের বলিষ্ঠ ভূমিকা ছিল : প্রধানমন্ত্রী
৪৩১

পরীক্ষার আগেই ঝরে পড়ল সাড়ে ৫ লাখ শিক্ষার্থী

প্রকাশিত: ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় ঝরে পড়েছে প্রায় সাড়ে ৫ লাখ শিক্ষার্থী। শনিবার যারা এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় অংশ নেবে তাদের মধ্যে গত দুই বছর আগে নিবন্ধন করেছিল ২২ লাখ ৮৭ হাজার ৩২৩ শিক্ষার্থী।  

এবার পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে ১৭ লাখ ৪০ হাজার ৯৩৭ জন। সেই হিসাবে নিয়মিত ৫ লাখ ৪৭ হাজার ৩৮৬ জন ঝরে পড়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আসন্ন এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে পরীক্ষার সার্বিক দিক তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থী ঝরে পড়ার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেন, ‘প্রকৃত হিসাবে পরীক্ষার্থী কমেনি। গত দুই বছর আগে শিক্ষার্থীরা পরীক্ষার জন্য নিবন্ধন করে। তাদের মধ্যে অনেকে টেস্ট পরীক্ষায় বিভিন্ন বিষয়ে ফেল করায় তারা পরীক্ষায় অংশ নিতে পারছে না।’

তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা যাতে টেস্ট পরীক্ষায় আরও মনোযোগী হয় ও ভালোভাবে পড়ালেখা করে এ জন্য টেস্ট পরীক্ষায় ফেল করলে পাবলিক পরীক্ষায় অংশ নিতে দেওয়া হয় না।’

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘এবার সারা দেশে মোট ২১ লাখ ৩৫ হাজার ৩৩৩ পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। তাদের মধ্যে এসএসসি পরীক্ষার্থী ১৭ লাখ ১০২ জন, দাখিল ৩ লাখ ১০ হাজার ১৭২ জন এবং এসএসসি ভকেশনালে ১ লাখ ২৫ হাজার ৫৯ জন পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করবে।’

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, ‘কার্যকর পদক্ষেপের ফলে গতবার প্রশ্নফাঁসের কোনো ঘটনা ঘটেনি।  একই পদক্ষেপ এবারও নিচ্ছি, তাই প্রশ্নফাঁসের কোনো আশঙ্কা নেই।  অভিভাবকদের প্রতি অনুরোধ থাকবে যে, তারা গুজবের পেছনে ছুটে যেন বিভ্রান্ত না হন।’

কোনো শিক্ষককে প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে সরকারি শিক্ষকদের সাময়িক বরখাস্ত করা হবে।  আর বেসরকারি শিক্ষকদের এমপিও স্থগিত করে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হবে। যদি প্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডি ব্যবস্থা না নেয়, সে ক্ষেত্রে গভর্নিং বডি ভেঙে দেওয়া হবে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক প্রমুখ।

এই বিভাগের আরো খবর